হোয়াইটওয়াশও জিম্বাবুয়ে দলকেই বেশিবার করেছে বাংলাদেশ

শেয়ার করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুন

আভা ডেস্কঃ ওয়ানডেতে জিম্বাবুয়ে মানেই বাংলাদেশের প্রাপ্তির খাতায় আরেকটি পাতা যুক্ত হওয়া। এই দলটির বিপক্ষেই সবচেয়ে বেশি সিরিজ ও ম্যাচ জয়। হোয়াইটওয়াশও এই দলকেই বেশিবার করেছে বাংলাদেশ। সিরিজ নিশ্চিত করে মঙ্গলবার (২০ জুলাই) হারারে স্পোর্টস ক্লাবে জিম্বাবুয়ানদের মুখোমুখি হবে তারা। সামনে তিনটি অর্জনের হাতছানি- জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫০তম জয়, ষষ্ঠ হোয়াইটওয়াশ ও বিশ্বকাপ সুপার লিগের পূর্ণ ৩০ পয়েন্ট!

বাংলাদেশ সময় বেলা দেড়টায় ম্যাচটি শুরু হবে। ১৫৫ রান ও ৩ উইকেটে জিতে সিরিজ নিশ্চিত করে ফেললেও এই ম্যাচ কোনও নিয়মরক্ষার নয়। গত মেতে শ্রীলঙ্কার কাছে শেষ ম্যাচ হেরে ১০ পয়েন্ট খোয়ানোর স্মৃতি এখনও মুছে যায়নি। এবার তাই জিম্বাবুয়েকে শেষ ম্যাচে হালকাভাবে নেওয়ার কোনও চিন্তা নেই তামিম ইকবালদের মনে।

দ্বিতীয় ম্যাচ জয়ের পার্শ্বনায়ক মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন বলে দিলেন দলের মানসিকতার কথা, ‘জিম্বাবুয়েকে হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই, যেহেতু ঘরের মাঠে সব দলই দুর্দান্ত। এজন্য বেশি মনোযোগ রেখে খেলছি, শতভাগ দিয়ে চেষ্টা করছি। প্রত্যেক সিরিজে হোয়াইটওয়াশের লক্ষ্য থাকবে। প্রক্রিয়া ঠিক থাকলে ৩-০ ব্যবধানে জিতব ইনশাআল্লাহ।’

এই ম্যাচ জিতলে সিরিজ থেকে পাওয়া ৩০ পয়েন্টে সুপার লিগের টেবিলের শীর্ষ দল ইংল্যান্ডের (৯৫) সঙ্গে ব্যবধান কমে দাঁড়াবে ১৫ পয়েন্টে। ৭০ পয়েন্ট সংগ্রহ করে বাংলাদেশ আছে দ্বিতীয় স্থানে। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইটওয়াশ করে শীর্ষে উঠেছিল তারা। কিন্তু পেছনে পড়ে গেছে ইংল্যান্ডের। শ্রীলঙ্কার মতো জিম্বাবুয়ের কাছেও যেন ১০ পয়েন্ট না হারায়, তাই সতর্ক বাংলাদেশ।

গত রোববার (১৮ জুলাই) জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টানা ১৮তম জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। এই দলটির বিপক্ষে যা ছিল ৭৭ ম্যাচে তাদের ৪৯তম জয়। এবার আফ্রিকান দলটির বিপক্ষে অনন্য জয়ের মাইলফলক স্পর্শ করার সুযোগ। সাকিব আল হাসান হয়তো এমন ম্যাচে আবারও নায়ক হতে অবদান রাখবেন ব্যাটে-বলে। প্রথম ওয়ানডেতে বল হাতে পাঁচ উইকেট, দ্বিতীয় ম্যাচে অপরাজিত ৯৬ রান। এবার অলরাউন্ড নৈপুণ্য দেখার প্রত্যাশা তার কাছে করা যেতেই পারে।

এই ম্যাচ মাহমুদউল্লাহর জন্যও স্মরণীয় করে রাখার। পঞ্চম বাংলাদেশি হিসেবে দুইশতম ওয়ানডে খেলতে যাচ্ছেন সদ্য টেস্ট থেকে অবসর নেওয়া এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান।

বাংলাদেশের এত অর্জনের হাতছানির ম্যাচে দুশ্চিন্তা তামিমের হাঁটুর চোট। অস্বস্তি নিয়ে দলকে নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। প্রথম ম্যাচে ডাক মারার পর দ্বিতীয় ম্যাচেও ছন্দে ফেরেননি, আউট ২০ রানে। লিটন দাস সেঞ্চুরিতে সিরিজ শুরু করার পর ‍২১ রান করেছেন সবশেষ ম্যাচে। তামিমের সঙ্গে তার ব্যাটে টপ অর্ডার শেষ ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াবে আশা করা যায়।

তামিম রান না পেলেও তার নিবেদনে মুগ্ধতা প্রকাশ করেছেন সাইফ, ‘প্রত্যেক ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। অধিনায়ক তামিম ইকবাল ভাই চোট নিয়ে এই সিরিজ খেলছেন, কারণ সুপার লিগে পয়েন্টের ব্যাপার আছে। প্রত্যেক খেলোয়াড়ই এটা মাথায় রেখে গুরুত্ব সহকারে খেলছে।’

এই সিরিজ খেলে দেশে ফিরে আসবেন তামিম। তাকে অস্ট্রেলিয়া সিরিজে পাওয়া নিয়ে রয়েছে অনিশ্চয়তা। এই পরিস্থিতিতে শেষটা রাঙিয়ে দিয়ে একাধিক অর্জনে তিনি দলকে নেতৃত্ব দিতে পারেন কি না সেটাই দেখার।

Next Post

২৩ জুলাই থেকে ফের লকডাউনে দেশ

মঙ্গল জুলাই ২০ , ২০২১
শেয়ার করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুনআভা ডেস্কঃ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ঈদের এক দিন পর ২৩ জুলাই (শুক্রবার) ভোর ৬টা থেকে ফের লকডাউন শুরু হচ্ছে। লকডাউন চলবে ৫ আগস্ট পর্যন্ত। এবার লকডাউনে কঠোর বিধিনিষেধের আওতার বাইরে রাখা হচ্ছে খাদ্যপণ্য উৎপাদন ও প্রক্রিয়াজাতকরণের সঙ্গে যুক্ত মিল-কারখানা এবং কোরবানির পশুর চামড়া সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম। […]

Chief Editor

Johny Watshon

Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit, sed do eiusmod tempor incididunt ut labore et dolore magna aliqua. Ut enim ad minim veniam, quis nostrud exercitation ullamco laboris nisi ut aliquip ex ea commodo consequat. Duis aute irure dolor in reprehenderit in voluptate velit esse cillum dolore eu fugiat nulla pariatur

Quick Links