রাজশাহীতে সিডিসির ৩০০ জন সদস্য পেল ৩০ লাখ টাকার ব্যবসায়িক অনুদান

শেয়ার করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুন

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পের আর্থ-সামাজিক তহবিলের অধীনে ৩০০ জন সিডিসি সদস্যকে ব্যবসায়িক অনুদান প্রদান করা হয়েছে। বুধবার সকালে নগর ভবনের সিটি হল সভাকক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে উপকারভোগীদের মাঝে নগদ অর্থ সহায়তা বিতরণ করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোশেনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। এ প্রকল্পের আওতায় ৩০টি ওয়ার্ডের তিনশতজন নির্বাচিত উপকারভোগীর মাঝে ত্রিশ লাখ টাকা নগদ অর্থ সহায়তা এবং অনলাইন ব্যবসার জন্য ৪ জন উপকারভোগীর মাঝে ৪টি স্মার্ট ফোন বিতরণ করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র বলেন, রাজশাহী বাংলাদেশের মধ্যে সেরা বসবাসের জন্য নগরী। সবুজ, পরিচ্ছন্ন, নিরাপত্তা, অপরাধ প্রবণতা হ্রাস, শিশু স্বাস্থ্য সেবা, রাতের ঝলমলে নগরীসহ বিভিন্ন সূচকে এ নগরী বাংলাদেশের মধ্যে বসবাসের জন্য সেরা নগরী হিসেবে ইতোমধ্যে স্বীকৃতি লাভ করেছে। নানামূখী কারণে এ নগরীটি সবদিক দিয়ে এগিয়ে। কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ এ নগরটিকে আরো সুন্দর রাখতে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন। সুন্দর এই রাজশাহীকে আমরা আগামীতে আরো সুন্দর, উন্নত, আধুনিক ও বাসযোগ্য নগরী হিসেবে গড়ে তুলবো।

তিনি বলেন, প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় নির্বাচিত উপকারভোগীদের আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। নগরীর ১৯৬টি সিডিসির মাধ্যমে এ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। নগরীতে শিল্প কারখানা তেমন গড়ে উঠেনি। নগরীতে রেশম কারখানা, টেক্সটাইল মিলস বৃহৎ শিল্পকারখানা প্রতিষ্ঠা হলেও এখন তা আজ বন্ধ প্রায়। নগরীতে কর্মসংস্থান ও শিল্পায়নের জন্য ইতোমধ্যে তিনটি শিল্পাঞ্চল অনুমোদন দিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। যার মধ্যে বিসিক শিল্প নগরী-২ এর কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে।

সিটি মেয়র বলেন, প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পটি দরিদ্র মানুষের জীবনমান উন্নয়ন ও জীবিকার টেকসই উন্নয়ন বিশেষ করে নারী ও কিশোরদের উন্নয়নে কাজ করছে। রাজশাহী মহানগরীর উন্নয়নে ভূমিকা অব্যাহত  রেখেছে। বিগত মেয়াদে এটি বন্ধ হবার প্রক্রিয়া শুরু হলে এ বিষয়ে সচেষ্ট হয়ে চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করি। যা আজও অব্যাহত রয়েছে। দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে দক্ষতা উন্নয়ন, শিক্ষা সহায়তা প্রদান, ক্ষুদ্র ব্যবসা প্রতিষ্ঠা, শিশুদের শিক্ষার ব্যবস্থা, বাল্য বিবাহ রোধ ইত্যাদি কার্যক্রম সম্পাদন করা হবে। বিশেষ করে সার্বিকভাবে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন কাজ করে যাচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভূমিহীন পরিবারের জন্য গৃহ নির্মাণ কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন। রাজশাহী মহানগরীতে গৃহহীন মানুষের জন্য গৃহনির্মাণের এ কার্যক্রম আগামীতে অব্যাহত রাখা হয় সেজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ রাখব। এ প্রকল্পের আওতায় ৩শ ৭টি পরিবারকে গৃহ নির্মাণ খাতে ঋণ প্রদান করা হয়েছে। আগামীতে এ কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে চাই।

রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. এবিএম শরীফ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পের সদস্য সচিব ও রাসিকের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ নুর ইসলাম তুষার, এলআইইউপিসিপি টাউন ম্যানেজার মোঃ আব্দুল কাইয়ুম মন্ডল, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের চীফ কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট অফিসার মোঃ আজিজুর রহমান, সিডিসি টাউন ফেডারেশনের সভাপতি আয়েশা আক্তার মুন্নী, উপকারভোগী সিডিস সদস্য মর্জিনা। সঞ্চালনায় ছিলেন ইউএনডিপির সোসিও ইকোনমিক এন্ড নিউট্রিশন অফিসার মোঃ জুলফিকার আলী। অনুষ্ঠানে ইউএনডিপির কর্মকর্তাসহ সিডিসির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Next Post

টিকিটে নামের ভুলে যাত্রীকে মারধর করলেন টিটিই

বুধ জানু. ৫ , ২০২২
শেয়ার করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুননিজস্ব প্রতিনিধিঃ রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে এক যাত্রীকে মারধর করা হয়েছে। মারধরের ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরালও হয়েছে। জানা গেছে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে ট্রেন টিকিট এক্সামিনারের (টিটিই) হাতে এক যাত্রী মারধরের শিকার হয়। ঐ যাত্রীর নাম মো. রুবেল (২৪)। তিনি পেশায় একজন আনসার সদস্য। ঐ যাত্রী চাঁপাইনবাবগঞ্জের […]

Chief Editor

Johny Watshon

Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit, sed do eiusmod tempor incididunt ut labore et dolore magna aliqua. Ut enim ad minim veniam, quis nostrud exercitation ullamco laboris nisi ut aliquip ex ea commodo consequat. Duis aute irure dolor in reprehenderit in voluptate velit esse cillum dolore eu fugiat nulla pariatur

Quick Links