ছাত্রলীগ নেতাদের গ্রেফতার ও বিচার দাবি করেছেন

শেয়ার করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুন

ava desk: কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলকারী ছাত্রলীগ নেতাদের গ্রেফতার ও বিচার দাবি করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। রোববার দুপুর ১২টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ‘নিপীড়নবিরোধী শিক্ষকবৃন্দ’ ব্যানারে আয়োজিত সমাবেশে তারা এ দাবি জানান। এর আগে ৩০ জনের বেশি শিক্ষক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার পর্যন্ত পদযাত্রায় অংশ নেন। একই দাবিতে এদিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ করেছে বাম প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনগুলোর মোর্চা ‘প্রগতিশীল ছাত্র জোট’। বিক্ষোভ শেষে তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির কাছে চার দফা দাবি সংবলিত স্মারকলিপি প্রদান করেন। আন্দোলনকারীদের এক অংশের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খানের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংকিং অ্যান্ড ইন্স্যুরেন্স বিভাগ। এদিকে রাশেদ খানকে রোববার দুই মামলায় ১০ দিন রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।
শিক্ষকদের সমাবেশ ও পদযাত্রায় অংশ নেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. গীতি আরা নাসরিন ও অধ্যাপক ফাহমিদুল হক, ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. তাসনিম সিরাজ, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সাবেক শিক্ষক অধ্যাপক ড. আকমল হোসাইন, একই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক তানজিম উদ্দিন খান, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান খান, ইউল্যাবের ভিজিটিং প্রফেসর অধ্যাপক আসফার হোসেন, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সামিনা লুৎফা প্রমুখ।
অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলন একটি যৌক্তিক দাবি। এর প্রতি ব্যাপক জনসমর্থন রয়েছে। ৫৬ শতাংশ কোটা অযৌক্তিক ও অন্যায়। সরকার সেটা স্বীকার করেছে। স্বীকার করে কমিটি গঠন করবে বলে প্রতিশ্র“তি দিয়েছিল। সেই কমিটি গঠনে বিলম্ব করেছে, তার কারণে ছাত্ররা আবার আন্দোলন করেছে। এই আন্দোলন যদি কন্টিনিউ না করত, তাহলে কমিটি গঠন হতো না। কোটা সংস্কার আন্দোলনের মতো যৌক্তিক আন্দোলনে যে হামলার ঘটনা ঘটেছে, সেটা অত্যন্ত দুঃখজনক। স্বাধীনতার পর দেশে এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে কি না, তা আমার জানা নেই। পাকিস্তান ও ব্রিটিশ শাসনামলেও এ ধরনের ঘটনা ঘটেনি।
অধ্যাপক আসিফ নজরুল বলেন, ন্যায়সংগত আন্দোলন করতে গিয়ে আমাদের সন্তানরা চার ধরনের অন্যায়ের শিকার হয়েছেন। তাদের হাতুড়িপেটা করা হয়েছে, মেয়েদের শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয়েছে, গুরুতর আহত করা হয়েছে- এটা প্রথম অন্যায়। দ্বিতীয় অন্যায় হচ্ছে- আহতদের চিকিৎসা ব্যাহত করা হয়েছে।
তিনি বলেন, প্রতিবাদ করার অধিকার মৌলিক মানবাধিকার। এই প্রতিবাদ হয়েছে বিধায় বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। প্রতিবাদ করার অধিকার যারা অস্বীকার করে, তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী, সংবিধানবিরোধী।
সমাবেশে চার দফা দাবি তুলে ধরেন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. গীতি আরা নাসরিন। দাবিগুলো হল- কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের ওপর হামলাকারীদের বিচার করতে হবে, আন্দোলনকারীদের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে, হামলায় আহতদের চিকিৎসাসেবা প্রদান করতে হবে, নারী আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নকারীদের বিচার ও দ্রুত কোটা সংস্কারের প্রতিশ্রুত প্রজ্ঞাপন জারি করতে হবে।
রাশেদের মুক্তি দাবিতে ঢাবিতে মানববন্ধন : কোটা সংস্কার আন্দোলনের একাংশের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদুল হকের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংকিং অ্যান্ড ইন্স্যুরেন্স বিভাগ। রোববার সকাল ১০টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের এমবিএ ভবনের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। রাশেদ এই বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী।
কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের কর্মকাণ্ড জঙ্গিদের মতো -ঢাবি ভিসি : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেছেন, কোটা সংস্কার নিয়ে আন্দোলনকারীদের কর্মকাণ্ড জঙ্গিদের মতো। রোববার দুপুরে নিজ কার্যালয়ে কোটা আন্দোলন নিয়ে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এমন মন্তব্য করেন। এ সময় ভিসির সঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন প্রোভিসি (প্রশাসন) অধ্যাপক মোহাম্মদ সামাদ ও প্রক্টর অধ্যাপক গোলাম রব্বানী।
ভিসি বলেন, ‘তালেবান জঙ্গিরা বিভিন্ন গোপন আস্তানা থেকে যে রকম উসকানিমূলক ভিডিওবার্তা পাঠায়, তার অবিকল উগ্র চরমপন্থী মতাদর্শী প্রচারণামূলক ভিডিও আমি নিজে দেখেছি।’ তিনি বলেন, ‘তালেবান নেতা মোল্লা ওমর ও ওসামা বিন লাদেনের মতো ভিডিওবার্তা পাঠানো হচ্ছে।’ তিনি বলেন, জঙ্গিরা যেভাবে শেষ অস্ত্র হিসেবে নারীদের ব্যবহার করে, সেভাবে কোটা আন্দোলনেও ছাত্রীদের ব্যবহার করা হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় এসব মেনে নেবে না। ফৌজদারি অপরাধ করলে আইনের শাসন কার্যকর হতে হবে।
কোটা আন্দোলনের সঙ্গে কোনো জঙ্গি সংগঠনের যোগাযোগ আছে কি না- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আখতারুজ্জামান বলেন, ‘কোন সংগঠন জানি না। কিন্তু ফেসবুকে যে ভিডিও দেখেছি, সে ভিডিও জঙ্গিদের ধরনের। সেখানে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করার কথা বলা হয়েছে। এসব দেখে মনে হয়েছে, অশুভ কোনো শক্তির তৎপরতা রয়েছে।’ শিক্ষার্থীরা ক্লাস-পরীক্ষায় অংশ নিতে চায় উল্লেখ করে ভিসি বলেন, অশুভ শক্তির তৎপরতায় ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন চলছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অশুভ শক্তি ঢুকতে চাচ্ছে। তার প্রমাণ হিসেবে তিনি জানান, লন্ডন থেকে ফোন করে তাদের এক সহকর্মীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। ফায়দা নেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে।
প্রগতিশীল ছাত্র জোটের স্মারকলিপি : প্রগতিশীল ছাত্র জোট ভিসির কাছে চারটি দাবি সংবলিত স্মারকলিপি দিয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল- সন্ত্রাস, সহিংসতা, দখলদারিমুক্ত শিক্ষায় গণতান্ত্রিক পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে। শিক্ষার্থীদের ওপর হামলাকরী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় পুলিশি হয়রানি ও গ্রেফতার বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। আটক শিক্ষার্থীদের মুক্তির জন্য আইনি পদক্ষেপ নিতে হবে।
স্মারকলিপি দেয়ার সময় ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতি জিলানী শুভ, ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি গোলাম মোস্তফা, ফেডারেশনের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ সম্পাদক সালমান সিদ্দিকী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
এক শিক্ষার্থীকে মারধর করে থানায় সোপর্দ : কোটা সংস্কার আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে রোববার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে ওমর ফারুক নামে লোকপ্রশাসন বিভাগের এক ছাত্রকে মারধর করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরে তাকে ছিনতাইকারী বলে শাহবাগ থানায় সোপর্দ করা হয়। এ বিষয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান যুগান্তরকে বলেন, এ রকম একজনকে থানায় আনা হয়েছে। বিষয়টি আমরা দেখছি।
রাশেদ ১০ দিনের রিমান্ডে : কোটা সংস্কার আন্দোলনের একাংশের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খানের ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রোববার পৃথক দুটি মামলায় ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূর রিমান্ডের আদেশ দেন। কোটা সংস্কার নিয়ে ফেসবুক লাইভে প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে মানহানিকর বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের মামলায় ৫ দিন এবং আন্দোলনের সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসায় ভাংচুরের অপর মামলায় ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।
তথ্যপ্রযুক্তি আইনের মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগের ইন্সপেক্টর মো. রফিকুল ইসলাম আসামির ৫ দিনের রিমান্ড শেষে ফের ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। অপরদিকে ভিসির বাসভবনে ভাংচুর মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের সহকারী কমিশনার মো. ফজলুর রহমান রাশেদকে গ্রেফতার দেখানোর আবেদনসহ ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।
জবিতে কোটা আন্দোলনকারী ও সাংবাদিকদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা, আহত ১৫ : কোটা সংস্কার আন্দোলনে ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে প্রতিগতিশীল ছাত্রজোট রোববার দুপুরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে ভাস্কর্য চত্বরের সামনে এসে বিক্ষোভকারীরা সমাবেশ শুরু করে। এ সময় ছাত্রলীগের কর্মীরা অতর্কিত হামলা চালায়। জবি ছাত্রলীগ কর্মী অ্যাকাউন্টিং নবম ব্যাচের শিক্ষার্থী রিয়াজ, গণিত বিভাগের ১১তম ব্যাচের পরাগ, ইতিহাস বিভাগের ১২তম ব্যাচের শিক্ষার্থী নূরে আলমের নেতৃত্বে ১৫-২০ জনের একটি গ্রুপ হামলায় অংশ নেয়। এ সময় সাংবাদিকরা সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে তাদের ওপরও হামলা চালায় ছাত্রলীগ। হামলায় সাংবাদিকসহ ১৫ জন আহত হন। গুরুতর আহত দৈনিক সমকালের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক লতিফুল ইসলাম, আমার সংবাদের আসলাম অর্ক, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি কিশোর কুমার সরকার, সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বি, সাংগাঠনিক সম্পাদক সমিত ভৌমিক, দফতর সম্পাদক অনিমেষ রায়, ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি রুহুল আমিন ও সদস্য জাহিনকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে।
জানতে চাইলে জবি ছাত্রলীগ সভাপতি তরিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক শেখ জয়নুল আবেদীন রাসেল বলেন, অভিযোগের বিষয়ে খোঁজখবর নেয়া হচ্ছে। জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

jugantor

Next Post

রোগীদের জিম্মি করে দাবি আদায়ে জনমনে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে

সোম জুলাই ৯ , ২০১৮
শেয়ার করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুনava desk :চট্টগ্রামে সাংবাদিককন্যা রাইফার মৃত্যুতে অভিযুক্ত ম্যাক্স হাসপাতালকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। রোববার হাসপাতালটিতে অভিযান চালিয়ে ব্যাপক অনিয়ম পাওয়ায় র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এই জরিমানা করেন। একইদিন নগরীর সিএসসিআর হাসপাতালকেও চার লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। এই অভিযানের প্রতিবাদে চট্টগ্রামের সব বেসরকারি হাসপাতাল, […]

এই রকম আরও খবর

শিরোনাম

Chief Editor

Johny Watshon

Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit, sed do eiusmod tempor incididunt ut labore et dolore magna aliqua. Ut enim ad minim veniam, quis nostrud exercitation ullamco laboris nisi ut aliquip ex ea commodo consequat. Duis aute irure dolor in reprehenderit in voluptate velit esse cillum dolore eu fugiat nulla pariatur

Quick Links