এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যুতে আরএমপির সাইবার ক্রাইম ইউনিট প্রধানের আবেগঘন স্ট্যাস্টাস

শেয়ার করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুন

আভা ডেস্কঃ অসুস্থ জনিত কারণে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের এক সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। আশরাফ আলী নামের ওই পুলিশ সদস্য আরএমপির সাইবার ক্রাইম ইউনিটে কর্মরত ছিলেন। সাইবার ক্রাইম ইউনিট এর সহকারী পুলিশ কমিশনার উৎপল কুমার চৌধুরী তার এই সদস্যের মৃত্যুতে ফেইসবুকে একটি আবেগঘন স্ট্যাস্টাস দেন।

ভোরের আভার পাঠকদের স্ট্যাস্টাসটি তুলে ধরা হলোঃ

প্রিয় আশরাফ,

এইতো ৪/৫ দিন আগের কথা, তোমাকে ঢাকায় পাঠিয়ে দিলাম কিন্তু তখনো বুঝতে পারি নাই যে তুমি আর আসবে না।

এইতো তিন/চার মাস আগের কথা রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিট গঠিত হলো। প্রথমে মাত্র চার জনকে নিয়ে এই ইউনিট গঠিত হলো পরে তোমাদের পাঁচজনকে পুলিশ লাইন থেকে নিয়ে এসে পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে পোস্টিং করানো হলো। গত প্রায় তিন মাস ধরে তোমাকে হাতে কলমে সাইবার ক্রাইম ইউনিট সকল কার্যক্রম শেখানো হলো। যখন সাইবার ক্রাইম ইউনিট রাজশাহী মহানগরীর সকল মানুষের ভরসাস্থল হয়ে উঠলো। যখন আমরা সাইবার ক্রাইম ইউনিটের একটি দক্ষ টিম হিসেবে নিজেদেরকে তৈরি করলাম। ঠিক সেই মুহুর্তে তুমি হঠাৎ আমাদের মধ্য থেকে হারিয়ে গেলে।

যখন এই সাইবার ক্রাইম ইউনিটের সকল সদস্যদের নিয়ে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের সুযোগ্য পুলিশ কমিশনার স্যারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ও বিভিন্ন উদ্ভাবনী বিষয় নিয়ে সফলতার সাথে কাজ করে যাচ্ছিলাম সেই মুহূর্তে এই ধাক্কা, যা আমাদের সবাইকে অনেকটা বাকহীন করে দিয়েছে।

“অপারেশন কন্ট্রোল এন্ড ট্রেনিং সেন্টার (রাজশাহী মহানগরীর সেন্ট্রাল সি সি ক্যামেরা মনিটরিং সেন্টার),” কিশোর গ্যাং ডিজিটাল ডাটাবেজ, হ্যালো আরএমপি অ্যাপস এর কার্যক্রম, ডাটা এনালাইসিস এর কার্যক্রম, বিভিন্ন অপরাধে অভিযুক্ত অপরাধীদের তালিকা সংরক্ষণ, সাইবার অপরাধীদের সনাক্তকরণ সহ প্রত্যেকটি কার্যক্রম যখন অত্যন্ত সফলতার সাথে একটি টিম ওয়ার্ক এর মাধ্যমে এগিয়ে যাচ্ছিলো ঠিক সেই মুহূর্তে তুমি আমাদের মাঝে আর নেই যা মেনে নিতে আমাদের খুবই কষ্ট হচ্ছে।

বয়স মাত্র ২০ বছর । সবেমাত্র জীবনের শুরু। তোমার জীবনের শুরুটা হয়েছিল অনেক অনেক ভালোভাবে। ইতিমধ্যেই তুমি নিজেকে সাইবার ক্রাইম ইউনিট এর দক্ষ সদস্য হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছিলে। তুমি নিজেকে যেভাবে দক্ষ করে গড়ে তুলেছিল ঠিক তেমনি দেশ ও জাতি তোমার কাছ থেকে আরো অনেক কিছু প্রত্যাশা করেছিল কিন্তু নিয়তির নির্মম পরিহাস!

তোমার যখন অসুখের বিষয়ে আমরা অবগত হয়েছি ঠিক তখন থেকেই উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী-ঢাকা এমনকি বহি: বাংলাদেশেও যোগাযোগ করেছি। তোমার পাসপোর্ট, বহি: বাংলাদেশ ছুটি, ভিসা সবকিছু রেডি কিন্তু….

তোমার হাতে পর্যাপ্ত সময় আর ছিলনা। কর্মক্ষেত্রে আমরা তোমার কাছে কোন ভুল করে থাকি ক্ষমা করে দিও। মহান সৃষ্টিকর্তা তোমাকে যেন জান্নাতবাসি করেন।

Next Post

মাতৃভাষা দিবস স্মরণে ডাকটিকিট প্রকাশ

রবি ফেব্রু. ২১ , ২০২১
শেয়ার করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুনআভা ডেস্কঃ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২১ ফেব্রুয়ারি। ১৯৫২ সালের এই দিনে রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে রাজপথে আন্দোলনে নামেন বাংলার দামাল ছেলেরা। পাকিস্তানি বাহিনীর গুলিতে প্রাণ হারান সালাম-বরকত-রফিক-শফিক-জব্বার প্রমুখ। দিবসটি উপলক্ষে ডাক অধিদপ্তর স্মারক ডাকটিকিট, উদ্বোধনী খাম ও ডাটা কার্ড প্রকাশ করছে। ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার […]

Chief Editor

Johny Watshon

Lorem ipsum dolor sit amet, consectetur adipiscing elit, sed do eiusmod tempor incididunt ut labore et dolore magna aliqua. Ut enim ad minim veniam, quis nostrud exercitation ullamco laboris nisi ut aliquip ex ea commodo consequat. Duis aute irure dolor in reprehenderit in voluptate velit esse cillum dolore eu fugiat nulla pariatur

Quick Links